চারটি বোমাই পৃথিবীতে ফেলতে চায় উত্তর কোরিয়া

মাত্র তিন-চারটি পারমাণবিক বোমাতেই পৃথিবী ধ্বংস করতে পারে উত্তর কোরিয়া। নিজেকে উত্তর কোরিয়ার একজন মুখপাত্র দাবি করে আলেজান্দ্রো কাও ডে বেনোস নামের এক ব্যক্তি এই চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন। খবর ইন্ডিপেনডেন্টের।

ডে বেনোস বলেন, ‘কেউ উত্তর কোরিয়াকে স্পর্শও করতে পারবে না। যদি কেউ সেটা করার চেষ্টা করে তবে দেশের লোকজন বন্দুক এবং ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে তা প্রতিহত করবে। ’

আর্জেন্টিনার ওয়েবসাইট ইনফোবেকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ডে বেনোস বলেন, ‘উত্তর কোরিয়া ইতোমধ্যেই তাদের পারমাণবিক এবং হাইড্রোজেন বোমাজাতীয় অস্ত্র প্রস্তুত রেখেছে। আমাদের কাছে হাইড্রোজেন বোমাও রয়েছে। ’

তিনি আরো বলেন, উত্তর কোরিয়ায় সব সিদ্ধান্ত নেন কিম জং উন। তিনি ছাড়া আর কারও সিদ্ধান্ত নেয়ার কোনো অধিকার নেই। উত্তর কোরিয়ার বন্দি শিবিরে মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছিল হিউমেন ওয়াচ রাইটস। সংস্থাটি জানিয়েছে, এসব বন্দি শিবিরে জোর করে মানুষকে কাজ করতে বাধ্য করা হয়। সেখানকার পরিস্থিতি খুবই বিপজ্জনক। লোকজনকে জীবনের হুমকির মধ্যেই কাজ করতে হয়।

কিন্তু এসব বন্দি শিবির সম্পর্কে ডে বেনোস বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি এটা শাস্তি নয় বরং পুনর্বাসন। এগুলো অনেকটা মানসিক থেরাপির মতো। ’

তিনি বলেন, ‘হয়তো যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর কোরিয়ার চেয়ে অনেক বেশি ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে। কিন্তু এটা পরিমাণের প্রশ্ন নয়। প্রশ্ন হচ্ছে বিস্ফোরণের ক্ষমতা নিয়ে। একটি হাইড্রোজেন বোমা একটি পারমাণবিক বোমার চেয়ে একশ গুণ বেশি শক্তিশালী। ’

এ ধরনের তিন-চারটি বোমা দিয়ে পুরো পৃথিবীই ধ্বংস করা সম্ভব বলেও উল্লেখ করেন তিনি। জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও উত্তর কোরিয়ার বার বার পারমাণবিক ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষায় কোরীয় দ্বীপে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে দক্ষিণ কোরিয়ার পাশে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ওয়াশিংটন এবং পিয়ংইয়ংয়ের মধ্যে চলমান উত্তেজনার মধ্যেই এ ধরনের মন্তব্য করলেন ডে বেনোস।