ফেসবুক পেজ ভেরিফিকেশন শীঘ্রই শুরু হচ্ছে বাংলাদেশে !

ফেসবুক পেজ ভেরিফিকেশন Facebook Page Verification

ফেসবুক পেজ ভেরিফাই করার জন্য অনেক চেষ্টা করেও যারা ব্যর্থ হয়েছেন, তাদের জন্য সুখবর। সম্প্রতি বাংলাদেশে শুরু হয়েছে ফেসবুক পেজ ভেরিফিকেশন প্রসেস। ভেরিফাইড পেজ এখন হতে পারে হাতের নাগালে !

একনজর দেখে আসুন আমাদের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ – Radio Today BD

ভেরিফাইড পেজ মানে হচ্ছে ফেসবুক কর্তৃক স্বীকৃত একটি ফ্যানপেজ, যার নামের পাশে নীল বা ধূসর রঙয়ের টিকচিহ্ন থাকে। যাকে বলা হয় ব্লু ব্যাজ (Blue Badge). আপনি যদি কোনো মিডিয়া ব্যক্তিত্ব হন, বা আপনার পরিচিত কোনো সেলিব্রেটি থাকে, তাহলে আপনি তার নামে একটি ফেসবুক পেজ বানিয়ে ভেরিফাই করে নিতে পারবেন। ফেসবুকে যদি আপনার ব্রান্ড, কোম্পানী বা প্রতিষ্ঠানের কোনো ফেসবুক পেজ থাকে, সেটিও একইরুপে ভেরিফাইড হিসেবে স্বীকৃত করে নেয়া যাবে।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ পেজ ভেরিফাই করার ব্যাপারে একটি নিয়ম উল্লেখ করেছে। সেখানে একটি ভেরিফিকেশন ফর্ম পূরণ করে পেজ ভেরিফাই করার আবেদন জানানোর কথা বলা হয়েছে। আগেই বলে রাখছি, এই নিয়ম অনুসারে যত ডকুমেন্টসই সাবমিট করেন, এতে কোনো লাভ হবেনা। পেজ তো ভেরিফাই হবেই না। বরং পেজের রিচ কমে যেতে পারে। এই নিয়মটি আসলে শুধুমাত্র মন্ত্রণালয় বা সরকার কর্তৃক স্বীকৃত অফিসিয়াল কর্পোরেটদের জন্য।

অর্থাৎ ফেসবুক শুধুমাত্র ওই সকল অফিসিয়াল রিপ্রেজেন্টেটিভ পারসনদের আবেদন গ্রহণ করে ! সেক্ষেত্রে আপনার অবশ্যই একটি হাই সিকিউরিটি সার্টিফ‍াইড ওয়েবসাইট লাগবে, যা আপনি কম খরচেই বানিয়ে নিতে পারেন। এ পদ্ধতিতে আপনার পেজ ভেরিফিকেশন এর জন্য সাবমিট করার ১৪ থেকে ২১ দিনের মাঝে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ পেজটি ভেরিফাই করে দিবে।

ফেসবুক পেজ ভেরিফাই করার নিয়মটি আমরা নিচে উল্লেখ করছি –

  • ফেসবুক প্রোফাইল বা পেজে অফিশিয়াল ওয়েবসাইট যোগ করা।
  • ওয়েবসাইটে প্রোফাইল বা পেজের লিংক রাখা।
  • পাবলিক ফিগার পেজের ক্ষেত্রে পেজের ক্যাটাগরির সাথে উইকিপিডিয়া বা অন্যান্য তথ্যসুত্রের রেফারেন্স ওয়েবসাইটে মেটা ট্যাগ করা।
  • প্রোফাইেল অফিশিয়াল ওয়েবসাইটের ডোমেইন থেকে বানানো ইমেইল এড্রেস যোগ করে ইমেইলটি ভেরিফাই করা।
  • পেজটি আইফোন এর ম্যানশন এ্যাপস দিয়ে অথেন্টিক করা।
  • পেজের প্রশাসক বা এডমিন হলে তার অফিশিয়াল ওয়েবসাইটের ডোমেইনের ইমেইল ফেসবুকে যুক্ত রাখা।
  • পেজের এবাউট (About) অংশটি সম্পূর্ণভাবে পূরণ করা।

এই ধাপগুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে মানসম্মত যেকোনো ফেসবুক প্রোফাইল বা পেজে ভেরিফাইড করা যাবে। তবে এটা মাথায় রাখবেন, ভেরিফাইড সর্বসাধারণের জন্য নয়। ভেরিফাইড পেজ থেকে উল্টাপাল্টা পোস্ট দিয়ে দেশের সম্মানহানি করার মত কাজ করা থেকে বিরত থাকুন। ধন্যবাদ !