Home / Bangladesh / নিজের স্ত্রী ভেবে জড়িয়ে ধরায় ৭০,০০০ টাকা জরিমানা !

নিজের স্ত্রী ভেবে জড়িয়ে ধরায় ৭০,০০০ টাকা জরিমানা !

অন্যের স্ত্রীকে নিজের স্ত্রী মনে করে জড়িয়ে ধরা অপরাধে এবার এক যুবককে গুণতে হলো মোটা অংকের টাকা জরিমানা ! বিস্ময়কর এ ঘটনাটি ঘটেছে টাঙ্গাইলের সখীপুরে। ভুলবশত আরেকজনের বউকে জড়িয়ে ধরার কারণে গ্রাম্য শালিসে ওই যুবককে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন বিকেলে মানিক চৌধুরীর স্ত্রী নাসিমা চৌধুরী (২২) তার বোনের বাড়ি উপজেলার কালিদাস বল্যাচালা থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। চিতাখোলা এলাকায় পৌঁছলে কালিদাস উত্তরপাড়া গ্রামের আবুল কালামের ছেলে দুই সন্তানের জনক আবদুল আলীম (২৮) দৌড়ে এসে তাকে পেছনে থেকে জাপটে ধরে নোংরামি করতে থাকেন। এ সময় ওই মহিলা তার স্বামীকে ফোন করে ডেকে এনে আবদুল আলীমকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। পরে আবদুল আলীমকে পিটিয়ে হাতমোড়া দিয়ে বেঁধে স্থানীয় কালিয়ান বাজারে নিয়ে যাওয়া হয়। রাতে এক শালিসী বৈঠকে আবদুল আলীম ৭০ হাজার টাকা ছিনতাই করেছেন এই মর্মে তার পরিবারের কাছ টাকা আদায় করে মুছলেকা রেখে ছেড়ে দেওয়া হয়।

নাসিমা নামে ওই যুবতী বলেন, ছেলেকে বিদেশ পাটানোর জন্য বোনের বাড়ি থেকে ৭০,০০০ টাকা ধার করে বাড়ি ফেরার পথে আবদুল আলীম আমার হাতে থাকা টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত আবদুল আলীম বলেন, ওই রাস্তা দিয়ে হেটে যাওয়ার সময় পড়ে থাকা একটি বিড়ি ওঠিয়ে খেতেই আমার মাথা ঘুরতে থাকে। এসময় আমার স্ত্রীর ওড়নার পরিহিত একটি মহিলাকে দেখতে পেয়ে আমি তাকে পেছন থেকে জাপটে ধরে ভড়কে দেয়ার চেষ্টা করি। পরে ওই যুবতীর স্বামীসহ অন্যরা এসে টাকা ছিনতাইয়ের অপবাদে আমার হাত পা বেঁধে পেটাতে পেটাতে নিয়ে যায়।

আব্দুল আলীমের বাবা আবুল কালাম বলেন, আমাদেরকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে স্ট্যাম্পে সই রাখা হয়েছে। প্রতিবেশী দেলোয়ার হোসেন বলেন, আবদুল আলীম একজন সহজ সরল ছেলে। তার বিরুদ্ধে ইতিপূর্বে কোন অভিযোগ পাইনি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নূরুজ্জামান তালুকদার মারপিটের কথা অস্বীকার করে বলেন, শালিসী বৈঠকে আবদুল আলীমের স্বীকারোক্তির প্রেক্ষিতেই ওই মহিলার ছিনতাইকৃত ৭০ হাজার টাকা আদায় করে মুচলেকা রাখা হয়েছে।